25 September, 2021 (Saturday)
শিরোনাম

ফের চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, নারী যাত্রী আহত

প্রকাশিতঃ 15-09-2021



নিউজ ডেস্ক : কিশোরগঞ্জের ভৈরব এলাকায় আবারও চলন্ত ট্রেনে দুর্বৃত্তদের পাথর নিক্ষেপের খবর পাওয়া গেছে। পাথরের আঘাতে মমতাজ মারোয়া (৫০) নামের এক নারী যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। পরে ট্রেনটি ভৈরব স্টেশনে আসার পর রেলওয়ে হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে পরিবারের সদস্যদের সাথে ঢাকায় চলে গেছেন তিনি।

আহত নারী কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলা ইত্তেফাকের সাংবাদিক রফিকুল ইসলামের স্ত্রী। এ নিয়ে ১০ দিনে ট্রেনে ২টি পাথর নিক্ষেপের ঘটনা ঘটলো।

গত ১৩ সেপ্টেম্বর বিকেলে ঢাকাগামী আন্তঃনগর এগারো সিন্ধুর গোধূলি ট্রেনে করে মমতাজ তার ছেলে মেয়েসহ ঢাকার পথে রওয়ানা হয়। ট্রেনটি কুলিয়ারচর রেল স্টেশন ছেড়ে ভৈরবের কালিকা প্রাসাদ স্টেশন অতিক্রম করার সময় দুর্বৃত্তদের ছোড়া একটি পাথর মমতাজের মাথায় লাগে এবং তিনি আহত হন। পরে তিনি ভৈরবে এসে চিকিৎসা নিয়ে ঢাকার পথে রওয়ানা হন।

এ ব্যাপারে ভৈরব রেলওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ ফেরদৌস আহম্মদ বিশ্বাসের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনার কথা তিনি শুনেছেন। তবে আহত নারী বা তার স্বজনদের খোঁজ করে পাওয়া যায়নি। অভিযুক্তদের ধরতে অভিযান চলছে। আহত নারীর মেয়ে নুসরাত জাহান সাথে কথা বলে জানা যায়, কুলিয়ারচর প্রেসক্লাবে সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার কুলিয়ারচর উপজেলা প্রতিনিধি মো. রফিক উদ্দিনের স্ত্রী মমতাজ মারোয়া (৫০) পরিবারসহ ঢাকা উদ্দেশ্যে কুলিয়ারচর রেল স্টেশন থেকে এগারো সিন্ধু গোধূলি ট্রেনে করে ভৈরব কালিকাপ্রসাদ এলাকায় গেলে অজ্ঞাত ব্যক্তি ট্রেনকে উদ্দেশ্য করে পাথর নিক্ষেপ করে। এতে মমতাজ মারোয়া (৫০) মারাত্মক আহত হয়। পরে তাকে ভৈরব রেলওয়ে হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে কুলিয়ারচর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, এসব বিষয়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জোরালো পদক্ষেপ নিচ্ছে। যারা চলন্ত ট্রেনে পাথর ছুড়ে মারছে, তাদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে কাজ করছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

 




Social Media

মন্তব্য করুন:





সর্বশেষ খবর





সর্বাধিক পঠিত



এই বিভাগের আরও খবর

আরও সংবাদ