27 October, 2021 (Wednesday)
শিরোনাম

ডলারের বিপরীতে কমছে টাকার মান

প্রকাশিতঃ 25-09-2021



নিজস্ব প্রতিবেদক : টাকার বিপরীতে বেড়ে চলছে মার্কিন ডলারের দাম। রপ্তানি কম হওয়া এবং রেমিট্যান্স কমে যাওয়ার কারণে আগের তুলনায় বেড়েছে বৈদেশিক মুদ্রার চাহিদা। ডলারের দাম অব্যাহতভাবে বাড়তে থাকার কারণে ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি এবার উদ্বিগ্ন হয়ে উঠেছে বৈদেশিক মুদ্রার ডিলার হিসেবে কর্মরত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো।

বাজার সূত্রে জানা গেছে, দেশের ব্যাংকগুলোতে এখন নগদ মার্কিন ডলারের মূল্য ৮৭ টাকা। আমদানি পর্যায়ে ডলারের দর উঠেছে ৮৪ টাকা ৭৫ পয়সা। অর্থাৎ যারা ভ্রমণ করতে বিদেশে যাচ্ছেন, তাদের ৮৭ টাকা দরে ডলার কিনতে হচ্ছে। এ যাবৎকালে ডলারের সবচেয়ে শক্তিশালী অবস্থান ছিল গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে। সেসময় আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে ডলারের দর ৮৪ টাকা ৯৫ পয়সায় উঠেছিল। গত বৃহস্পতিবার সে রেকর্ড ভেঙে বাংলাদেশি মুদ্রা টাকাকে দুর্বল করে দিয়ে ডলার হয়েছে আরো শক্তিশালী। এদিন আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে প্রতি ডলারের দাম উঠেছে ৮৫ টাকা ৫০ পয়সায়। খোলা বাজারে ডলারের বিনিময় মূল্য ছিল ৮৭ টাকা ৮০ পয়সা।

ব্যাংক সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হওয়ায় দেশে চাপ বেড়েছে আমদানিতে। ফলে এর দায় পরিশোধে লাগছে বাড়তি ডলার। এ কারণে বাড়ছে  ডলারের দর। তবে পর্যাপ্ত বৈদেশিক মুদ্রা মজুত রয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে। এখন কেন্দ্রীয় ব্যাংক বাজার স্থিতিশীল রাখতে ব্যাংকগুলোর চাহিদার বিপরীতে ডলার বিক্রি করেছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, গত ২২ সেপ্টেম্বর থেকে নিজেদের মধ্যে ৮৫ টাকা ৩০ পয়সা দরে ডলার লেনদেন করছে ব্যাংকগুলো। গত ২ সেপ্টেম্বর এ দর ছিল ৮৫ টাকা ২০ পয়সা। আগের মাসের শুরুতে আন্তঃব্যাংক মুদ্রাবাজারে ডলারের দাম ছিল ৮৪ টাকা ৮০ পয়সা। এ হিসাবে ডলারের বিপরীতে ৩৪ কর্মদিবসের ব্যবধানে ৫০ পয়সা দর হারিয়েছেটাকা। এর আগে ২০২০ সালের জুলাই থেকেই ৮৪ টাকা ৮০ পয়সা স্থিতিশীল ছিল ডলার।

ব্যাংকগুলো থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে, আমদানি দায় মেটাতে ব্যবসায়ীদের থেকে দেশি ও বিদেশি খাতের বেশিরভাগ ব্যাংক প্রতি ডলারে ৮৫ টাকা ৩৫ পয়সা পর্যন্ত নিচ্ছে। তবে নগদ ডলারের মূল্য বেশিরভাগ ব্যাংকে ৮৭ টাকার উপরে রয়েছে। কয়েকটি ব্যাংকে ৮৮ টাকা ছাড়িয়ে গেছে নগদ ডলারের মূল্য।

জানা গেছে, ব্যাংকগুলোর মতোই বেশি দামে ডলার বিক্রি করছে মানি এক্সচেঞ্জ কমিশনগুলো। মতিঝিল পাইওনির এক্সচেঞ্জের এক কর্মকর্তা জানান, তারা ডলার কিনছেন ৮৭ টাকা ৫০ পয়সায় আর বিক্রি করছেন ৮৭ টাকা ৭০ পয়সায়।

এদিকে, খোলাবাজারেও ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে ডলারের দাম। খোলা বাজারে আজকের ডলার বিক্রি হচ্ছে ৮৭ টাকা ৮০ পয়সা থেকে ৮৯ টাকা পর্যন্ত এবং কিনছে ৮৭ টাকা থেকে ৮৭ টাকা ৩০ পয়সা। 

ডলার বিক্রেতারা জানান, ভ্রমণ কিংবা অফিসিয়াল কাজে যারা বিদেশ যান তারাই মূলত খোলা বাজার থেকে ডলার কেনেন। এতদিন করোনার কারণে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ছিল অধিকাংশ দেশে। এখন আস্তে আস্তে খুলে দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন দেশের বর্ডার। ফলে বিদেশ যাত্রা বাড়ছে। তাই ডলারের চাহিদাও বেড়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, শিল্পের কাঁচামাল, মূলধনি যন্ত্রপাতিসহ সব ধরনের পণ্যের আমদানি বাড়ছে। ইউরোপ-আমেরিকাসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে আসছে। বাংলাদেশে করোনার মধ্যেই পুরোদমে উৎপাদন কর্মকাণ্ড চলছে। সব মিলিয়ে আমদানি বাড়াটাই স্বাভাবিক। আর এটা অর্থনীতির জন্য মঙ্গল




Social Media

মন্তব্য করুন:





সর্বশেষ খবর





সর্বাধিক পঠিত



এই বিভাগের আরও খবর

আরও সংবাদ