30 November, 2021 (Tuesday)
শিরোনাম

ইসরায়েলি আগ্রাসনে বিভৎস শৈশব ফিলিস্তিনি শিশুদের

প্রকাশিতঃ 25-11-2021



অনলাইন ডেস্ক : ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর এ রকম একটি আগ্রাসনের ঘটনায় ফিলিস্তিনি একটি পরিবার কীভাবে নিজেদের রক্ষা করছে, সে রকম একটা ভিডিও সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। ভিডিওটি খুব সংক্ষিপ্ত, কিন্তু পুরো একটি ঘটনা পরিপূর্ণভাবে বোঝার জন্য যথেষ্ট। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ইসরায়েলি সৈন্যরা যে নিষ্ঠুরতার প্রদর্শন করছে, সেটা অভূতপূর্ব। এটা ফিলিস্তিনি নারী ও শিশুদের ওপর চালানো ইসরায়েলি বাহিনীর অত্যাচারের একটি নমুনা। ভারী অস্ত্রে সজ্জিত একদল ইসরায়েলি সৈন্য ফিলিস্তিনি একটি বাড়িতে ঢুকে পড়ে। হাতে মোবাইল ধরা একজন ফিলিস্তিনি নারী বলছেন, তিনি ইসরায়েলভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থায় কাজ করেন। তার পরিচয় পাওয়ার পরও ইসরায়েলি সৈন্যরা সেখান থেকে ফিরে আসেনি।

একজন সৈন্য সব শিশুকে এক জায়গায় জড়ো হওয়ার আদেশ দিচ্ছিল। শিশুরা টি-শার্ট পরা ছিল, তাদের চোখেমুখে ছিল আতঙ্কের ছাপ। শিশুদের অনেককেই ঘুম থেকে টেনে তোলা হয়েছিল। একটি মেয়ে হাত দিয়ে মুখ লুকাচ্ছিল। অন্য আরেকটি মেয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদছিল। আরেকজন বুকের সঙ্গে হাত আড়াআড়ি রেখে নীরবে দাঁড়িয়ে ছিল। ছোট বাচ্চাসহ মোট ১৬ জন শিশু সেখানে ছিল। আগ্রাসনকারীরা ক্যামেরা এমনভাবেধরে ছিল যেন শিশুরা কোনো খোঁয়াড়ের ভেড়ার পাল।

আগ্রাসনকারীদের দাবি, পাথর ছোড়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওই বাড়িতে তাদের অভিযান। কিন্তু এই অভিযোগ সম্পূর্ণ বানোয়াট। মানবাধিকার সংস্থার প্রতিবেদন থেকেই এটা স্পষ্ট যে ইসরায়েলের সৈন্যরা আইনবহির্ভূতভাবে এ ধরনের অভিযান চালায়। তাদের কাছে তল্লাশির কোনো বৈধ অনুমতি থাকে না। এ অভিযানের পেছনে স্পষ্ট একটা উদ্দেশ্য হচ্ছে ফিলিস্তিনি শিশুদের মনে আরও ভয় ও অনিশ্চয়তা বোধ তৈরি করে দেওয়া।

বাড়িতে বাড়িতে ঢুকে এই আগ্রাসনের ঘটনা ফিলিস্তিনি পরিবারগুলোর মনস্তাত্ত্বিক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে শিশুদের মধ্যে বিষণ্নতা, উদ্বিগ্নতা ও ভীতির বোধ জন্ম নিচ্ছে। ঘর যেখানে তাদের নিশ্চয়তা আর আনন্দের উৎস হওয়ার কথা, তার বদলে ভীতি তাদের তাড়া করে ফিরছে। এর ফলাফল হচ্ছে, শিশুরা বিদ্যালয়ে যেতে আগ্রহ হারাচ্ছে, তারা চুপচাপ, বিষণ্ন কিংবা খিটখিটে মেজাজের হয়ে যাচ্ছে। সারা বিশ্বে শিশুরা যেখানে গড়ে ৬ দশমিক ৮ থেকে ১২ দশমিক ২ শতাংশ পিটিএসডিতে (পোস্ট ট্রমাটিক ডিজঅর্ডার) ভুগছে, সেখানে ফিলিস্তিনি শিশুদের মধ্যে এ হার ৩৪ দশমিক ১ থেকে ৫০ দশমিক ৪ শতাংশ।




Social Media

মন্তব্য করুন:





সর্বশেষ খবর





সর্বাধিক পঠিত



এই বিভাগের আরও খবর

আরও সংবাদ