22 January, 2022 (Saturday)
শিরোনাম

খালেদাকে নিয়ে ভয়ঙ্কর পরিকল্পনা তারেকের

প্রকাশিতঃ 08-01-2022



নিউজ ডেস্ক : সম্পর্কে তার মা। তারেক জিয়া বেগম খালেদা জিয়ার এখন জীবিত একমাত্র সন্তান, বড় ছেলেও বটে। কিন্তু মাকে নিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের এক ভয়ঙ্কর পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন তারেক জিয়া। বিএনপির একাধিক নেতার সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে যে, সরকার উৎখাতে বেগম খালেদা জিয়াকে ট্রামকার্ড হিসেবে ব্যবহার করতে চাইছেন তারেক জিয়া। ইতিমধ্যে বিএনপি নেতাদের কাছে তার এই মনোভাবের কথা খোলামেলা ভাবেই বলেছেন বলে বিএনপির একাধিক নেতা জানিয়েছেন। তারা এই পরিকল্পনার কথা শুনে তারেকের নির্মমতায়, নিষ্ঠুরতায় আঁতকে উঠেছেন। বিভিন্ন সূত্র বলছে, তারেক জিয়া বিএনপি নেতাদের বলছেন বেগম খালেদা জিয়ার কিছু না হওয়া পর্যন্ত তিনি হাসপাতালেই থাকবেন। অর্থাৎ বেগম খালেদা জিয়া যদি সুস্থও হয়ে উঠেন, তার যদি হাসপাতালে থাকার প্রয়োজনীয়তাও না থাকে তবুও তাকে হাসপাতালে রাখতে হবে।
 
তারেক জিয়া বিএনপির অন্তত দুজনে নেতাকে বলেছেন, বেগম জিয়া যতদিন হাসপাতালে থাকবেন ততদিনই বিএনপির লাভ, এই লাভের হিসাবও দিয়েছেন। বিএনপির একজন নেতা বলেছেন, তারেক মনে করেন যে বেগম খালেদা জিয়া হাসপাতালে থাকলে বিএনপির আন্দোলনে সরকার বাধা দেয়ার ক্ষেত্রে নৈতিকভাবে সাহস পাবে না। কারণ এটিতে জনরোষের সৃষ্টি হতে পারে। বিষয়টিকে মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে জনগণ দেখেছে। এ কারণেই বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে রেখে আন্দোলন করার পক্ষে তারেক। যদিও এভারকেয়ার হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলছেন, বেগম খালেদা জিয়া ৫৬ দিন হাসপাতালে রয়েছেন এবং তার শারীরিক অবস্থার যেটুকু উন্নতি হওয়া দরকার সেটুকু হয়েছে। এমনকি বেগম খালেদা জিয়ার অবস্থা আগের চেয়ে অবনতি ঘটেনি। এরকম একটি পরিস্থিতিতে বেগম খালেদা জিয়াকে কতদিন হাসপাতালে রাখা হবে এটি একটি বড় প্রশ্ন। কিন্তু তারেক জিয়া সরাসরি জানিয়ে দিয়েছেন যে, বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালেই রাখতে হবে।
 
তারেক জিয়ার দ্বিতীয় পরিকল্পনা আরও ভয়ংকর। তারেক জিয়া তার দলের নেতাদেরকে বলছেন যে, বেগম খালেদা জিয়ার যদি হাসপাতালে কিছু হয় তাহলে এটি সরকারের বিপক্ষে যাবে। সকলে মনে করবে যে চিকিৎসার জন্য বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশ যেতে দেওয়া হয়নি। অর্থাৎ বিনা চিকিৎসায় বেগম খালেদা জিয়ার মৃত্যুবরণ করেছেন -এরকম একটি ধারণা জনগণের মধ্যে দেয়া হবে। এই ধারণাটি এর যদি জনগণের মধ্যে ঢোকানো যায় তাহলে দ্রুত সরকার পতনের আন্দোলনকে বেগবান করা যাবে বলে তারেক জিয়া মনে করছেন। এরকম মনোভাবই তিনি কর্মীদেরকে বলেছেন। অর্থাৎ বেগম খালেদা জিয়াকে মৃত্যু পর্যন্ত হাসপাতালের বিছানায় শুইয়ে রাখা এবং বেগম খালেদা জিয়ার যদি স্বাভাবিক ভাবেই মৃত্যু হয় তাহলে সেটাকে বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হিসেবে প্রতিপন্ন করার চেষ্টার মাধ্যমে এক ভয়ঙ্কর রাজনৈতিক খেলার পরিকল্পনা এঁকেছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক জিয়া।
 
তারেক জিয়ার তৃতীয় পরিকল্পনায় বলা হচ্ছে যে, এখন বেগম খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্যও বিদেশে যাওয়ার জন্য কোন দেনদরবার করা হবে না। অর্থাৎ শামীম এস্কান্দার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যে আবেদন করেছিলেন, তিনি যে প্রধানমন্ত্রীর সহানুভূতি কামনা করছেন বা বেগম জিয়ার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা যে বিভিন্ন জায়গায় বেগম খালেদা জিয়াকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেওয়ার জন্য ছোটাছুটি-দৌড়াদৌড়ি করছেন, এসব না করার জন্য তারেক জিয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। তারেক জিয়া চাইছেন যে, খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে হবে, এই দাবির সঙ্গে সরকার পতনের দাবিকে যুক্ত করার জন্য। বিএনপির একজন নেতা বলছেন যে, আমরা যদি সরকারের কাছেই বেগম খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসা এবং মুক্তির জন্য আবেদন করি তাহলে তার পতন আমরা কিভাবে চাইবো? দুটি সাংঘর্ষিক কিন্তু তারেক জিয়া তাদেরকে ধমক দিয়ে চুপ করিয়েছেন। অর্থাৎ খালেদা জিয়া বিদেশে যাক সেটিও তারেক চান না, খালেদা জিয়া বাসায় যাক সেটিও তিনি চান না, খালেদা জিয়া সুস্থ হোক সেটিও তাঁর কাম্য নয়। বরং অসুস্থ বেগম খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে রেখে তার মৃত্যুর অপেক্ষা করা এবং বেগম খালেদা জিয়ার লাশ নিয়ে রাজনীতি করাই এখন তারেকের প্রধান পরিকল্পনা।



Social Media

মন্তব্য করুন:





সর্বশেষ খবর





সর্বাধিক পঠিত



এই বিভাগের আরও খবর

আরও সংবাদ